www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

May 27, 2024 3:11 pm

খবরে আমরাঃ বিজেপি বনাম তৃণমূল কংগ্রেসের লড়াই অব্যাহত। একের পাল্চটা অপর পক্ষ দিতে মরিয়া। এরই মাঝে বিভিন্ন ইস্যুতে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাতের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে ফের সাক্ষাৎ করতে চলেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শোনা যাচ্ছে, আগামী ৩০ এপ্রিল দিল্লিতে একই মঞ্চে দেখা যাবে তাঁদের।   

জানা গিয়েছে, আগামী ৩০ এপ্রিল সমস্ত রাজ্যের হাই কোর্টের বিচারপতিদের সম্মেলনের উদ্বোধন রয়েছে। ওই কনক্লেভে থাকবেন দেশের প্রধান বিচারপতি। সেই অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন মোদি। যেখানে উপস্থিত থাকার কথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এর জন্য আগামী ২৯ এপ্রিল অর্থাৎ আগামী শুক্রবার দিল্লি উড়ে যাবেন তিনি। তবে তিনি একা নন, সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরাই হাজির হবেন এই বিশেষ অনুষ্ঠানে। একমঞ্চে থাকলেও অবশ্য মোদি ও মমতার আলাদা করে বৈঠক হবে কি না, তা এখনও পরিষ্কার নয়।

উল্লেখ্য, চিফ মিনিস্টার্স-চিফ জাস্টিসেস কনফারেন্স অন জুডিশিয়ারি শেষবার অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৬ সালে। করোনা আতঙ্ক কাটিয়ে ছ’ বছর পর ফের বসছে এই সম্মেলনের আসর। সেখানেই ফের একমঞ্চে মুখোমুখি হবেন মমতা ও মোদি। প্রশ্ন উঠছে, কেন্দ্র-রাজ্যের সংঘাতের মধ্যে এই সাক্ষাৎ ঠিক কতখানি তাৎপর্যপূর্ণ?

সম্প্রতি কলকাতা হাই কোর্ট এমন একগুচ্ছ রায় দিয়েছে যাতে রাজ্য পুলিশের উপর অনাস্থারই প্রমাণ দিয়েছে বলে মত রাজনৈতিক মহলের একাংশের। একাধিক খুন, ধর্ষণ ও দুর্নীতির তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে তুলে দিয়েছেন কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি। এমনকী দেশের প্রধান বিচারপতি এমভি রামানার কাছে গিয়ে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় নালিশ করেছিলেন, তাঁর রায়ে ডিভিশন বেঞ্চ স্থগিতাদেশ দিচ্ছে। এই ইস্যুতে অশান্ত হয়েছিল কলকাতা হাই কোর্টের পরিবেশ। উলটোদিকে সম্প্রতি বিচার ব্যবস্থা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলতে চেয়েছেন, দেশে গণতান্ত্রিক পরিসর সঙ্কুচিত। তারই প্রভাব পড়ছে বিচার ব্যবস্থায়। যা মোটেও কাম্য নয়। এমন পরিস্থিতিতে একমঞ্চে মোদি-মমতা মুখোমুখি হওয়া অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মত ওয়াকিবহাল মহলের।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *