www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

April 16, 2024 12:14 am

খবরে আমরাঃ বকেয়া না মেটালে স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে পরিষেবা দেওয়া সম্ভব নয়। এই মর্মে ২০টি বেসরকারি হাসপাতালের তরফে চিঠি পাঠানো হল স্বাস্থ্যভবনে। বেসরকারি হাসপাতালগুলির সংগঠনের তরফে এই চিঠি পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি প্যাকেজের রেট বাড়ানোর আর্জিও জানানো হয়েছে। বেসরকারি হাসপাতাল সংগঠনের তরফে দাবি, তাদের বকেয়ার পরিমাণ অন্তত ২০০ কোটি টাকা। এই পরিস্থিতিতে টাকা না মেটালে তাদের পক্ষে পরিষেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

বেসরকারি হাসপাতাল সংগঠনগুলির বক্তব্য, এর আগেও তারা বকেয়া মেটানোর বিষয়ে স্বাস্থ্যদফতরে জানিয়েছিল। সেখান থেকে বলা হয়েছিল, ২০ দিনের মধ্যে এই টাকা তারা পেয়ে যাবে। কিন্তু সেই সময়ের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেলেও বকেয়া টাকা পায়নি বলেই বেসরকারি হাসপাতাল সংগঠনগুলির দাবি।

এরপরই স্বাস্থ্যভবনকে চিঠি পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয় ২০টি বেসরকারি হাসপাতাল সংগঠন। যারা এই চিঠিতে সই করেছে তাদের প্রায় ২০০ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে বলে দাবি। একইসঙ্গে তাদের বক্তব্য, কোভিডের সময় সরকারের তরফে যে প্যাকেজ নির্ধারিত করা হয়েছে, সেই দরে এখন কোভিড পরবর্তী পরিস্থিতিতে আর পরিষেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। ফলে বকেয়া না মেটালে এবং প্যাকেজের দর না বাড়লে স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে আর পরিষেবা দিতে পারবে না বলেই জানিয়ে দিয়েছে বেসরকারি হাসপাতালগুলি।

যদিও এ বিষয়ে স্বাস্থ্যভবনের তরফে সরকারিভাবে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে সূত্রের খবর, ২০ দিনের মধ্যে টাকা না মেটানো হলেও ৩০ দিনের মধ্যে টাকা মেটানো হচ্ছে। সেক্ষেত্রে বেসরকারি হাসপাতালগুলি রাজ্য সরকারের উপর চাপের পরিস্থিতি তৈরি করার চেষ্টা করছে বলেও মনে করছে স্বাস্থ্যভবনের একাংশ। একইসঙ্গে সূত্রের দাবি, বেসরকারি হাসপাতালগুলির বড় অঙ্ক বকেয়া এমনও নয়। মার্চের ১৭ তারিখের মধ্যেও তাঁরা একটা টাকা পেয়েছে।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *