www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

February 21, 2024 8:55 pm

খবরে আমরাঃ তৃণণূল উপনির্বাচনের প্রার্থী ঘোষণা করেছে অনেক আগেই। তৃণমূলের আসানসোলে প্রার্থী শত্রুঘ্ন শিনহা ও বালিগঞ্জে বাবুল সুপ্রিয়। এবার দেরিতে হলেও বিজেপি দুই উপনির্বাচনের প্রার্থী ঘোষণা করল। বালিগঞ্জ বিধানসভা ও আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রে আগামী ১২ এপ্রিল উপনির্বাচন। ইতিমধ্যেই তৃণমূল, সিপিএম তাঁদের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে। শুক্রবার প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করল বিজেপি। আসানসোলে বিজেপির প্রার্থী হচ্ছেন অগ্নিমিত্রা পাল, বালিগঞ্জে প্রার্থী কেয়া ঘোষ। তাৎপর্যপূর্ণভাবে, আসানসোল দক্ষিণের বিধায়ক অগ্নিমিত্রাকেই এবার লোকসভা উপনির্বাচনেও প্রার্থী করল দল। এই কেন্দ্র থেকে দু’বার জিতেছেন বিজেপির প্রার্থীই। বাবুল সুপ্রিয় ছিলেন এখানকার দু’বারের সাংসদ। তিনি দল ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সাংসদ পদ থেকেও ইস্তফা দেন। তাই এই কেন্দ্রে উপনির্বাচন হচ্ছে। অন্যদিকে বিধায়ক সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুর পর বালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন হচ্ছে। এখানে বঙ্গ বিজেপির মুখপাত্র কেয়া ঘোষ প্রার্থী। দুই উপনির্বাচনেই বিজেপির মুখ মহিলা প্রার্থী।

দুই কেন্দ্রের জন্যই তিনটি করে নাম পাঠানো হয়েছিল কেন্দ্রীয় বিজেপির কাছে। তার মধ্যে থেকেই এই দু’টি নাম বেছে নিয়েছে দিল্লি। এমন দু’জনকে প্রার্থী করা হয়েছে যাঁরা বিভিন্ন ইস্যুতে বিভিন্ন সময় সংবাদমাধ্যম কিংবা সামাজিক মাধ্যমে সরব হয়েছেন। রাজ্যে যথেষ্ট পরিচিত মুখও তাঁরা। অগ্নিমিত্রা আসানসোলের বিধায়কও। পুরনিগমের ভোটেও তাঁর ভূমিকা, সামনে থেকে লড়াই করার ক্ষমতা দেখেছে দল। সে কারণেই এবার নিজেদের গড় রক্ষার ভার তাঁর হাতেই বিজেপি দিল বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। কেন্দ্রীয় বিজেপি সূত্রে খবর, বাংলার নেতাদের দিয়েই এই উপনির্বাচনের প্রচার করতে চাইছে দল।

ইতিমধ্যেই তার জন্য একটি তালিকা তৈরি করা হয়েছে। আসানসোলের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে শুভেন্দু অধিকারীকে। সঙ্গে থাকবেন ভাটপাড়ার সাংসদ অর্জুন সিং, পুরুলিয়ার সাংসদ জ্যোতির্ময় সিং মাহাতো এবং বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী। অন্যদিকে বালিগঞ্জ বিধানসভার উপনির্বাচনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সাংসদ জগন্নাথ সরকারকে। সঙ্গে থাকছেন সঞ্জয় সিং, সোমনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়, অশোক দিন্দা। বালিগঞ্জের প্রার্থী হিসাবে নাম ঘোষণার পর কেয়া ঘোষ বলেন, “আমার দল যেভাবে আমার উপর ভরসা রেখেছে তার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। সমস্ত কর্মীদেরও আমার কৃতজ্ঞতা। কারণ ওনারাই তো আমার সঙ্গে থাকবেন, আমার সঙ্গে লড়বেন। এ লড়াই তো একার লড়াই নয়। সামগ্রিক লড়াই। সেই লড়াই জেতার জন্য পদ্মফুল আমার সঙ্গে থাকবে, এটাই আমার সবথেকে বড় ভরসা।”

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *