www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

April 14, 2024 5:04 pm

ম্যাগি খেয়ে মৃত্যু। হ্যা এটাই ঘটেছে। তবে ম্যাগির কিন্তু কোনও দোষ নেই। নিজেই বিষ মেশানো টমেটো দিয়ে ম্যাগি বানিয়ে খেলেন। মারা গেলেন ওই বিষেই। আর মৃত্যুর কারণ হয়ে উঠল ম্যাগি। ভাবছেন এটা আবার কেমন। তবে পড়ে দেখুন।

ম্যাগি খেয়ে মৃত্যু। হ্যা এটাই ঘটেছে। তবে ম্যাগির কিন্তু কোনও দোষ নেই। নিজেই বিষ মেশানো টমেটো দিয়ে ম্যাগি বানিয়ে খেলেন। মারা গেলেন ওই বিষেই। আর মৃত্যুর কারণ হয়ে উঠল ম্যাগি। ভাবছেন এটা আবার কেমন। তবে পড়ে দেখুন।

মুহূর্তের অসাবধানতা থেকে ঘটে গেল চরম ঘটনা! বাড়িতে ইঁদুরের উৎপাত, তাই একটি টমোটোয় ইঁদুরের বিষ (Rat Poison) মিশিয়ে ছিলেন তরুণী। ম্যাগি তৈরি করার সময় ভুল করে সেই টমেটো দিয়ে দেন রান্নায়। এরপর সেই বিষাক্ত ম্যাগি খেয়েই মর্মান্তিক মৃত্যু হল মুম্বইয়ের (Mumbai) বাসিন্দা ওই তরুণীর। বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যায় পরিবারের লোকেরা। যদিও বাঁচানো যায়নি।

মৃতা গৃহবধূ তরুণীর নাম রেখা নিষাদ (Rekha Nishad)। মুম্বই শহরের মালাদ এলাকার পাসকেল ওয়াড়ির বাসিন্দা ছিলেন তিনি। পুলিশ জানিয়েছে, ইঁদুর মারতে গত ২১ জুলাই তিনি একটি টমেটোতে বিষ মিশিয়ে রেখেছিলেন। পরদিন সেই বিষাক্ত টমেটোই ভুল করে ম্যাগিতে দিয়ে ফেলেন। পুলিশ আধিকারিক মুসা দেবর্ষী জানিয়েছেন, টিভি দেখতে দেখতে রান্না করছিলেন গৃহবধূ। ওই সময়েই অন্যমনস্ক হয়ে বিষাক্ত টমোটো ম্যাগিতে দিয়ে দেন। পরে সেই খাবার নিজেই খান।

ম্যাগি খাওয়ার ঘণ্টা খানেক বাদেই প্রবল বমি শুরু হয় মহিলার। তরুণীর শারীরিক অবস্থা ক্রমশ খারাপ হতে থাকে। তাঁর স্বামী ও দেওর তাঁকে স্থানীয় হাসপাতাল নিয়ে গিয়ে ভরতি করেন। সপ্তাহ খানেকের বেশি সময় ধরে সেখানেই চিকিৎসা চলছিল তাঁর। গতকাল মৃত্যু হয় তরুণীর।

এই ঘটনায় দুর্ঘটনাজনতি মৃত্যুর অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ।ওই মহিলা তাঁর স্বামী ও দেওরের সঙ্গে থাকতেন বলে জানা গিয়েছে। নানা ধরনের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন তরুণী। আচমকা এমন ঘটনায় পরিবারের লোকজন ভেঙে পড়েছেন। এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া। কীভাবে এই ঘটনা ঘটে গেল তা কিছুতেই বুঝতে পারছেন না কেউ।

এর আগে পুরনো নুডলস খেয়ে মৃত্যুর ঘটনা জানা গিয়েছিল। সেই ঘটনা খোদ নুডলের দেশ চিনের। এক বছর ধরে ফ্রিজে রাখা নুডলস রান্না করে খেয়েছিল একটি পরিবার। নুডলস স্যুপ খাওয়ার কয়েক ঘণ্ট পরই অসুস্থ হয়ে পড়ে সকলে। ওই পরিবারের ৯ জনেরই মৃত্যু হয়।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *