www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

February 22, 2024 1:38 pm

খবরে আমরাঃ ভারতীয় আইনের বলেই কর্মক্ষেত্রে মাতৃত্বকালীন ছুটি পাওয়ার অধিকার রয়েছে কোনও মহিলার। কিন্তু দেখা গেল সেই ছুটি পাওয়া নিয়েই গোলযোগ। সন্তান জন্ম নেওয়ার পরেও মিলছে না প্রার্থিত ছুটি, এই মর্মে একটি আবেদন জমা পড়ে দিল্লি হাই কোর্টে। আর তারপরেই চমক। কারণ সেই আবেদন মোতাবেক আবেদনকারীর বয়স মাত্র তিন মাস!

কী ঘটেছে ঠিক? আসছি সে কথাতেই।

১৯৬১ সালে এ দেশে পাশ হয়েছিল ম্যাটারনিটি বেনিফিট অ্যাক্ট। যা কর্মরতা মহিলাদের অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় সবেতন ছুটি পাওয়ার অধিকার নিশ্চিত করেছিল। কিন্তু আইন থাকলেও, তা কার্যকর না হওয়ার অভিযোগও ওঠে অনেক সময়ই। তেমনই একটি অভিযোগ সম্প্রতি জমা পড়েছিল দিল্লি হাই কোর্টে। আর সেখানেই দেখা যায় আবেদনকারী অন্য কেউ নয়, একটি তিন মাসের শিশু।

আসলে কর্মক্ষেত্র থেকে মাতৃত্বকালীন ছুটি পাননি তার মা। জানা গিয়েছে, ওই শিশুটির মা উত্তর দিল্লি পুরনিগমের একজন কর্মী। কিন্তু শিশুর জন্মের পরে তাঁকে মাতৃত্বকালীন ছুটি দিতে অস্বীকার করে পুরনিগম। এই পরিস্থিতিতে সরাসরি উত্তর দিল্লি পুরনিগমের বিরুদ্ধেই হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে ত্রিগাংশ জৈন নামের ওই শিশুটি। আদালতে তার আইনজীবী জানিয়েছেন, মামলাকারী পুরোপুরি তার মায়ের উপর নির্ভরশীল। এক্ষেত্রে তার অধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে বলেই অভিযোগ জানানো হয়েছে শিশুটির তরফে। তাই শিশুর দেখভাল করার জন্য সরকারের তরফে যে মাতৃত্বকালীন ছুটির নির্দেশ রয়েছে, তার মাকে সেই ছুটি মঞ্জুর করার জন্য আদালতে আবেদন জানিয়েছে শিশুটি।

যদিও পুরনিগমের তরফে যুক্তি দেওয়া হয়েছে, সরকারি চাকরির নিয়ম অনুযায়ী কেবলমাত্র দু’টি শিশুর জন্মের সময় ১৮০ দিন মাতৃত্বকালীন ছুটি পেতে পারেন কর্মরত মা। যেহেতু এই শিশুটি তার মায়ের তৃতীয় সন্তান, সুতরাং এবার এই ছুটির নিয়ম আর প্রযোজ্য হবে না বলেই জানিয়েছে পুরনিগম। এই পরিস্থিতিতে তিন মাসের এই শিশুটির অভিযোগকে আদালত কী চোখে দেখবে, সেদিকেই তাকিয়ে তার পরিবার।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *