www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

June 21, 2024 3:43 pm
mp-mla missing

বিধায়ক, সাংসদদের নামে ‘নিখোঁজ’ পোস্টার ঘিরে শোরগোল পড়ে গিয়েছে পুরুলিয়ায় (Purulia)। এলাকার বিজেপি (BJP) বিধায়কদের দেখা যায় না এলাকায়। এই মর্মে পুরুলিয়ার (saturia) সাতুড়ি ও নিতুড়িয়া (Nituria) এলাকায় পোস্টার পড়েছে। পোস্টারে লেখা রঘুনাথপুরের বিধায়ক বিবেকানন্দ বাউড়ি ও বাঁকুড়ার সাংসদ সুভাষ সরকারের (Suvas Sarkar) নাম।

খোদ বিধায়ক-সাংসদই নিঁখোজ। (MP-Mla) তাঁদের পাওয়া যাচ্ছে না। দীর্ঘদিনই নাকি তাঁদের দেখা মেলেনি। স্থানীয় মানুষজন এবার তাঁদের সন্ধান পেতে পোস্টার সাটালো। সন্ধান চাই তাঁদের। রাজ্যের বাস স্ট্যান্ড, রেল স্টেশন, সিনেমা হলে চোখ দিলেই একাধিক সন্ধান চাই বলে হরেক রকমের পোস্টার চোখে পড়ে। কিন্তু তাই বলে বিধায়ক আর সাংসদের নামে পোস্টার।

সোমবার সকাল থেকেই বিধায়ক, সাংসদদের নামে ‘নিখোঁজ’ পোস্টার ঘিরে শোরগোল পড়ে গিয়েছে পুরুলিয়ায় (Purulia)। এলাকার বিজেপি (BJP) বিধায়কদের দেখা যায় না এলাকায়। এই মর্মে পুরুলিয়ার (saturia) সাতুড়ি ও নিতুড়িয়া (Nituria) এলাকায় পোস্টার পড়েছে। পোস্টারে লেখা রঘুনাথপুরের বিধায়ক বিবেকানন্দ বাউড়ি ও বাঁকুড়ার সাংসদ সুভাষ সরকারের (Suvas Sarkar) নাম। যদিও এ নিয়ে রঘুনাথপুরের বিজেপি বিধায়ক বিবেকানন্দ বাউড়ির (Bibekananda Bauri) প্রতিক্রিয়া, ”যাদের চোখে ঠুলি পড়েছে, তাঁরা আমায় দেখতে পাবেন না।”

সোমবার সকালে রঘুনাথপুরের নিতুড়িয়া, সাঁতুড়িতে একাধিক নিখোঁজ পোস্টার মেলে। পাশাপাশি মুখ রঘুনাথপুরের বিজেপি বিধায়ক বিবেকানন্দ বাউড়ি ও বাঁকুড়ার বিজেপি সাংসদ সুভাষ সরকারের। তাতে বড় করে লেখা – নিখোঁজ। নিচে লেখা – ভোটে জেতার পর থেকে এলাকার মানুষ দেখতে পায়নি। পোস্টারের খবর পেয়ে বিজেপি বিধায়কের সাফ বক্তব্য, ”যাদের চোখে ঠুলি পড়েছে, তারা আমায় দেখতে পাবেন না, সেটাই স্বাভাবিক। ছিদ্রান্বেষী মানুষজন ছিদ্র খুঁজে বেড়ান। রসগোল্লার মধ্যেও তাঁরা ছিদ্র খুঁজবেন।”
প্রসঙ্গত, পেশায় হাই কোর্টের আইনজীবী বিবেকানন্দবাবু বিধানসভায় ৩ টি স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্য – ভূমি ও ভূমি সংস্কার, পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটি, বিধায়ক (এলাকা উন্নয়ন প্রকল্প)। তাঁর আদি বাড়ি রঘুনাথপুর থেকে ৩ কিলোমিটার দূরে, খাজুরা গ্রামে। বিধায়কের দাবি, যাতে এলাকার মানুষজনকে পরিষেবা দিতে পারেন, তাই শহরে চেলিয়ামা রোডে বারিকবাঁধে ভাড়া বাড়িতে থাকেন। তাঁর কথায়, ”প্রতি মাসের ১ থেকে ১৫ তারিখ কলকাতায় থাকতে হয়। হাই কোর্টেও ঠিকমতো যেতে পারেন না। রঘুনাথপুরের মানুষজনের জন্যই কাজ করি।”
পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর বিধানসভা কেন্দ্রটি বাঁকুড়া সংসদীয় এলাকার অন্তর্গত। তাই সেখানকার সাংসদ সুভাষ সরকারের বিরুদ্ধেও নিখোঁজ পোস্টার পড়েছে। তিনি কেন্দ্রীয় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী। তাঁর বিরুদ্ধে নিখোঁজ পোস্টারের বিষয়টি নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানার জন্য বেশ কয়েকবার ফোন করলেও উত্তর মেলেনি। তৃণমূলের তরফে পুরুলিয়া জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা জেলা পরিষদের জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশ স্থায়ী কমিটির কর্মাধ্যক্ষ সৌমেন বেলথরিয়া মন্তব্য, ”এমন পোস্টার পড়া স্বাভাবিক ঘটনা। রঘুনাথপুরে উনি প্রায় আসেন না। তাঁকে দেখা যায় না।”
administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *