www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

June 19, 2024 3:54 pm
জাতীয় পতাকা (National Flag)

দেশের স্বাধীনতার (Independence day) ৭৫ বছর উপলক্ষে ‘হর ঘর তিরঙ্গা’ কর্মসূচির ডাক দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাঁর ডাকে সাড়া দিয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের আয়োজন প্রায় সর্বত্রই। তবে এবার সেই কর্মসূচি ঘিরে অসন্তোষ প্রকাশ করলেন হিন্দু ধর্মগুরু জ্যোতি নরসিংহানন্দ।

স্বাধীনতার এত বছর বাদেও দেশে হিন্দু-মুসলিম ভেদাভেদ। সেই ভেদাভেদ থেকে হুমকি এবার জাতীয় পতাকা তৈরির বরাত নিয়েও।  পশ্চিমবঙ্গের এক মুসলিমকে বরাত দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হিন্দু ধর্মগুরু।

দেশের স্বাধীনতার (Independence day) ৭৫ বছর উপলক্ষে ‘হর ঘর তিরঙ্গা’ কর্মসূচির ডাক দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাঁর ডাকে সাড়া দিয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের আয়োজন প্রায় সর্বত্রই। তবে এবার সেই কর্মসূচি ঘিরে অসন্তোষ প্রকাশ করলেন হিন্দু ধর্মগুরু জ্যোতি নরসিংহানন্দ। জাতীয় পতাকা তৈরির বরাত মুসলমানদের দেওয়ার কারণেই, হিন্দুদের এই কর্মসূচি বয়কট করা উচিত। এমনটাই দাবি তাঁর। একইসঙ্গে তাঁর নির্দেশ, তেরঙা পতাকা নয়, (National Flag) প্রত্যেক হিন্দু নিজেদের ঘরে একটি করে গেরুয়া পতাকা রাখুক।

সম্প্রতি ওই ধর্মগুরুর একটি ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে। সেখানে তিনি তাঁর অসন্তোষ ব্যক্ত করেছেন। তাঁর দাবি, পশ্চিমবঙ্গের এক মুসলমান কারিগর বহুসংখ্যক জাতীয় পতাকা তৈরির বরাত পেয়েছেন। এর জন্য বেশ মোটা অঙ্কের পারিশ্রমিক পাচ্ছেন তিনি। একজন মুসলমান কেন জাতীয় পতাকা তৈরির জন্য এত টাকার বরাত পাবেন? এই প্রশ্ন তুলেই সরব হয়েছেন নরসিংহানন্দ। তাঁর দাবি, এটি একটি চক্রান্ত। এভাবেই জাতীয় কর্মসূচির নাম করে হিন্দুদের টাকা মুসলমানদের দেওয়া হচ্ছে।

তাঁর আরও দাবি, এই টাকা দিয়ে হিন্দুদেরই ক্ষতি করতে উদ্যত হবেন মুসলমানরা। তাই তাঁর পরামর্শ, নতুন করে জাতীয় পতাকা কেনার প্রয়োজন নেই। হয় পুরনো পতাকা উত্তোলন করা হোক, নাহলে একটি করে গেরুয়া পতাকা উত্তোলন করুক হিন্দুরা। একই সঙ্গে তিনি বিশেষ কিছু রাজনৈতিক দলকে ইঙ্গিত করেও ভর্ৎসনা করেছেন। জাতীয় কর্মসূচির বরাত ইসলাম ধর্মাবলম্বী কোনও ব্যক্তির পাওয়া উচিত নয় বলেই দাবি করেছেন এই ধর্মগুরু।

বিতর্কিত মন্তব্যের দরুন এর আগেও শিরোনামে উঠে এসেছিলেন এই ধর্মগুরু। মহিলা ও ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের বিরুদ্ধে বিদ্বেষমূলক মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। পুলিশ তাঁকে আটকও করেছিল। কিছুদিন আগে তাঁর জামিন মঞ্জুর হয়। আর তারপরই হর ঘর তিরঙ্গা কর্মসূচি নিয়ে তাঁর অসন্তোষ ব্যক্ত করেন তিনি। এই ভিডিও ঘিরেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগে পুলিশের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন নেটিজেনদের অনেকেই।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *