www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

February 22, 2024 12:40 pm
কলকাতা হাইকোর্ট (Calcutta Highcourt)

এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে খারিজের আবেদন করা হয়। রাজ্যের বক্তব্যের পর সেগুলি এদিন খারিজ হয়ে গেলো। রাজ্যের এডভোকেট জেনারেল সৌমেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় (Advocate General) মামলায় দাবি করেছিলেন, ইউনেসকো (Unesco) রেকগনেশন দিয়েছে গোটা রাজ্যের পুজার জন্য। শুধুমাত্র কলকাতার পুজার (Durga Puja 2022) জন্য নয়। ফলে মামলাকারীদের শুধু কলকাতার উল্লেখ সঠিক নয়। রাজ্যের পুজার স্বীকৃতি কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রকও দিয়েছে।

দুর্গাপূজায় ক্লাবগুলিকে অনুদান দেওয়ার প্রশ্নে আইনি লড়াইয়ে বড় স্বস্তি পেলো রাজ্য। মঙ্গলবার রাজ্যকে শর্তসাপেক্ষে ক্লাবগুলিকে অনুদান দিতে অনুমতি দিলো কলকাতা হাইকোর্ট (Calcutta Highcourt।

চলতি বছরে মুখ্যমন্ত্রীর (Chief Minister of West Bengal) ঘোষণা মতো ৬০ হাজার টাকা করে ৪৩ হাজার ক্লাবকে (Club Grant) দিতে অনুমতি দিয়েছে প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের (Chief Justice Prakash Sribastav) ডিভিশন বেঞ্চ। তবে আদালতের নির্দিষ্ট করে দেওয়া ছয়টি শর্ত এর জন্যে মানতে হবে। মুখ্যমন্ত্রী অনুদান দেওয়ার কথা ঘোষণার পরেই হাইকোর্টে পাঁচটি মামলা দায়ের হয়।

এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে খারিজের আবেদন করা হয়। রাজ্যের বক্তব্যের পর সেগুলি এদিন খারিজ হয়ে গেলো। রাজ্যের এডভোকেট জেনারেল সৌমেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় (Advocate General) মামলায় দাবি করেছিলেন, ইউনেসকো (Unesco) রেকগনেশন দিয়েছে গোটা রাজ্যের পুজার জন্য। শুধুমাত্র কলকাতার পুজার (Durga Puja 2022) জন্য নয়। ফলে মামলাকারীদের শুধু কলকাতার উল্লেখ সঠিক নয়। রাজ্যের পুজার স্বীকৃতি কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রকও দিয়েছে।

রাজ্যের আর বক্তব্য ছিল, পুলিশ প্রশাসনের সাথে সাধারণ মানুষের সংযোগ বৃদ্ধির কাজ (কমিউনিটি পুলিশিং এক্টিভিটি প্রসার) সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য প্রচার ও প্রসার, ট্যুরিজমের প্রসার এই পুরো বিষয়টিই করা হয় জনস্বার্থেই। রাজ্যের ঐতিহ্যকে সংরক্ষণ ও তার প্রচার করাই উদ্দেশ্য। এটাকে জনস্বার্থ ছাড়া আর কি বলা যেতে পারে? রাজ্য সরকার মনে করছেন এই মামলার কোন গ্রহণযোগ্যতা নেই।

উদাহরণ টেনে অ্যাডভোকেট জেনারেল বলেন, জমি অধিগ্রহণ ক্ষেত্রে রাজ্যের একটি পলিসি রয়েছে। সেখানে ব্যবসায়ীদের জন্য জমি প্রদান করা হয়, সেক্ষেত্রে ও অভিযোগ উঠতে পারে। কিন্তু সেখানে কি প্রশ্ন তোলা হয় না। দুর্গা পূজার এরাজ্যে জন্য নয় সারা দেশের মানুষের কাছে আজ তাৎপর্যপূর্ণ।আজ শুধু পূজা বলা যায় না। এই দুর্গাপূজার মধ্যে দিয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বার্তাও বহন করে। যে কারণে লক্ষ নয় কোটি কোটি মানুষ আজ শারদীয়া দুর্গাপুজোয় অংশ নেয়।

কিন্তু মামলাকারীদের আইনজীবী বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য্য জানান নির্দিষ্ট একটি সম্প্রদায়ের জন্য সরকার আর্থিক সাহায্য করতে পারে না। এটা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং সংবিধান বিরোধী।রাজ্যের মানুষের করের টাকা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এভাবে একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের মধ্যে টাকা বিলি করতে পারেন না। এদিন আদালতের রায়ে সেই বক্তব্য খারিজ হয়ে গেলো। প্রসঙ্গত, গেলো বছর পর্যন্ত রাজ্য ক্লাবগুলিকে ৫০ হাজার টাকার করে দিয়েছিলো। এবছর সেটা দাঁড়িয়েছে ৬০ হাজার টাকায়। এর জন্যে খরচ হচ্ছে ২৩৮ কোটি টাকা।

আদালতের শর্তগুলি হলো —

১)চলতি বছরে অনুদান দেওয়া যাবে সেই সব ক্লাবকে যারা গেলো বছর এই অনুদানের টাকা পেয়েছিলো এবং নিয়মমতো খরচ করে তাঁর নথি (utilizatiin certificate) জমা করেছিল।
২)খরচ সংক্রান্ত হাইকোর্ট গতবছর যে গাইডেলাইন দিয়েছিলো সেই মতোই এবছরও খরচ করতে হবে
৩)এই অর্থ সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে শুধুমতো রাজ্য পুলিশ ও কলকাতা পুলিশ বরাদ্দ করতে পারবে। সেই টাকা জনস্বার্থে ব্যবহার করা যাবে।
৪)রাজ্য পুলিশের ডিজিপিকে তাঁর আধিকারিকের মাধ্যমে খরচ সঠিক হচ্ছে কিনা নিশ্চিত করবেন
৫)ক্লাবগুলি খরচের হিসাব ও নথি সংশ্লিষ্ট মহকুমা আধিকারিকের কাছে জমা করবে।
৬)রাজ্যের সংশ্লিষ্ট অফিসার তা খতিয়ে দেখে আদালতে আগামী ১৫ ডিসেম্বর পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট জমা দেবেন

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *