www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

February 22, 2024 1:22 pm
শ্রাবণ অমাবস্যা (Amabosya)

শ্রাবণ অমাবস্যায় শিব-পার্বতীর পুজো করলে তাঁদের আশীর্বাদ বজায় থাকে এবং নিজের ভক্তদের মনোস্কামনা পূরণ করেন। অবিবাহিত মেয়েরা এদিন শিব-পার্বতীর পুজো করলে পছন্দ মতো জীবনসঙ্গী পেতে পারেন। এ ছাড়া বিবাহিত মহিলারা এদিন পুজো করলে অখণ্ড সৌভাগ্য লাভ করেন।

হিন্দু ধর্মে শ্রাবণ অমাবস্যার বিশেষ ধর্মীয় গুরুত্ব রয়েছে। (sravan month) শ্রাবণ মাস পূজার্চনার শ্রেষ্ঠ। শিবকে সমর্পিত এই মাস। শ্রাবণ মাসের অমাবস্যা হরিয়ালী অমাবস্যা (Hariyali amabosya) নামে পরিচিত। এদিন কৃষি উপকরণের পুজো করা হয়।

শ্রাবণ মাসের অমাবস্যা তিথিকে হরিয়ালী অমাবস্যা বলা হয়। এটি আবার শ্রাবণ অমাবস্যা নামেও পরিচিত।

অমাবস্যা শুরু- ৭ অগস্ট, সন্ধে ৭টা ১৩ মিনিটে।

অমাবস্যা সমাপ্ত- ৮ অগস্ট সন্ধে ৭টা ২১ মিনিটে।

শ্রাবণ অমাবস্যা ব্রত

চলতি বছর ৮ অগস্ট রবিবার এই অমাবস্যা পালিত হবে। এদিন পিণ্ডদান, তর্পণের জন্য শুভ। হরিয়ালী অমাবস্য অমাদের জীবনে গাছ-পালার গুরুত্ব জানিয়ে থাকে। এদিন বৃক্ষরোপণ শুভ মনে করা হয়। এই অমাবস্যার দিনে রাশির অনুযায়ী গাছ লাগালে সুফল পাওয়া যায়। কোন রাশির জাতকরা কোন গাছ লাগাবেন, জেনে নিন—

মেষ- আমলকি, বৃষ- জাম, মিথুন- চাঁপা, কর্কট- অশ্বত্থ, সিংহ- বট বা অশোক, কন্যা- বিল্ব, তুলা- অর্জুন, বৃশ্চিক- নীম, ধনু- কনের, মকর- শমী, কুম্ভ- আম, মীন- কুল।

শ্রাবণ অমাবস্যার মাহাত্ম্য

নারদ পুরাণ অনুযায়ী, শ্রাবণ মাসের অমাবস্যায় পিতৃশ্রাদ্ধ, দান, যজ্ঞ, দেব পুজো ও বৃক্ষরোপণের মতো শুভ কর্ম করলে অক্ষয় ফল লাভ করা যায়। শ্রাবণ অমাবস্যায় শিব-পার্বতীর পুজো করলে তাঁদের আশীর্বাদ বজায় থাকে এবং নিজের ভক্তদের মনোস্কামনা পূরণ করেন। অবিবাহিত মেয়েরা এদিন শিব-পার্বতীর পুজো করলে পছন্দ মতো জীবনসঙ্গী পেতে পারেন। এ ছাড়া বিবাহিত মহিলারা এদিন পুজো করলে অখণ্ড সৌভাগ্য লাভ করেন। যে জাতকের কোষ্ঠিতে কালসর্প দোষ, পিতৃদোষ ও শনির প্রকোপ থাকে, তাঁরা এই অমাবস্যার দিনে শিবলিঙ্গে জলাভিষেক, পঞ্চামৃত বা রুদ্রাভিষেক করলে লাভ হয়। এ দিন সন্ধেবেলা নদীর ধারে বা মন্দিরে দীপ দান করার বিধান রয়েছে।

এদিন বৃক্ষরোপণ করলে পুণ্য লাভ করা যায়

শাস্ত্রে হরিয়ালী বা শ্রাবণ অমাবস্যার দিনে বৃক্ষরোপণের বিধান দেওয়া হয়েছে। ভবিষ্য পুরাণে উল্লেখ করা হয়েছে সন্তানহীনদের জন্য বৃক্ষই তাঁদের সন্তান। বৃক্ষরোপণ করলে, তাতে বিদ্যমান দেবী-দেবতা ব্যক্তির মনোস্কামনা পূরণ করেনে। অশ্বত্থ গাছে ব্রহ্মা, বিষ্ণু ও শিবের বাস। পদ্ম পুরাণ অনুযায়ী, একটি অশ্বত্থ গাছ লাগালে ব্যক্তি শত যজ্ঞেরও বেশি পুণ্য লাভ করে। অশ্বত্থ দর্শন করলে পাপ নাশ হয়, স্পর্শ করলে লক্ষ্মী লাভ হয় এবং প্রদক্ষিণা করলে আয়ু বৃদ্ধি হয়। আবার বিষ্ণুর প্রিয় গাছ আমলকি লাগালে শ্রী লাভ করা যায়। গণেশ ও শিবের প্রিয় শমী গাছ আরোগ্য লাভে সাহায্য করে। শিবের আশীর্বাদ লাভের জন্য বিল্বপত্রের গাছ লাগানো উচিত। অশোক গাছ লাগালে জীবনের সমস্ত শোক দূর হয়ে যায়। সৌভাগ্য লাভের জন্য অর্জুন, নারকেল ও বট গাছ লাগানো উচিত। সন্তানের সুখ-সমৃদ্ধির জন্য অশ্বত্থ, নীম, বিল্ব, জবা ও অশ্বগন্ধা গাছ লাগানো উচিত। কুশাগ্র বুদ্ধি লাভের জন্। শঙ্খপুষ্পী, পলাশ, ব্রাহ্মী এবং তুলসী লাগানো শুভ।

 

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *