www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

April 14, 2024 4:01 pm

খবরে আমরাঃ গরু পাচার-কাণ্ডে বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের আবেদন খারিজ করল কলকাতা হাইকোর্ট। মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়ে দিয়েছে, সিঙ্গল বেঞ্চের নির্দেশ মতো সিবিআইয়ের জেরারর মুখোমুখি হতেই হবে অনুবর্তকে। তদন্তের এই অবস্থায় মিলবে না কোনও আইনি রক্ষা কবচও। গরু পাচার-কাণ্ডে জেরার জন্য সিবিআইয়ের পাঠানো নোটিসকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চের দ্বারস্থ হন অনুব্রত। কিন্তু বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা অনুব্রতের আবেদনকে খারিজ করে জানিয়ে দেন, তাঁকে তদন্তের মুখোমুখি হতেই হবে। কিন্তু সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে ডিবিশন বেঞ্চে যান অনুব্রত। এদিন সেই আবেদনও খারিজ করল হাইকোর্ট। সিবিআিয়ের দাবি, অনুব্রত মন্ডল একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি. তাই গরু পাচার-কাণ্ডে সিবিআই তদন্তে তাঁকে জেরার মুখোমুখি হতেই হবে। যদিও অনুব্রতের আইনজীবীর পাল্টা দাবী, তিনি অসুস্থ বলেই ছাড় মেলা উচিত। এদিন সিবিআিয়ের আইনজীবী এস ভি রাজু দাবি করেন, ১৫ মার্চ নোটিশের মেয়াদ শেষ হয়েছে। মঙ্গলবারই সিবিআই দফতরে আসতে বলা হয়েছিল অনুব্রত মণ্ডলকে। ফলে এই আর্জির গ্রহণযোগ্যতা নেই। তিনি বলেন, তদন্তের এই পর্যায়ে আদালত বাধা দিতে পারে না। যিনি বলছেন করোনার জন্য ভয় পাচ্ছেন, তাঁর ফেসবুকেই মাস্ক ছাড়া বিভিন্ন জায়গায় উপস্থিত থাকার ছবি রয়েছে। সেটা কীভাবে সম্ভব? যদিও অনুব্রতের আইনজীবী রাজ্যসভার সাংসদ বিবেক তাঙ্খা আদালতে বলেন, শরীরের জন্য সময় চান অনুব্রত। ২০০ কিলোমিটার যেতে বলা হচ্ছে। তদন্তের নামে আসলে হেনস্থা করা হচ্ছে তাঁকে। আইনজীবী বলেন, তদন্ত থেকে পালাচ্ছি না। সহযোগিতা করতে চাই। সিবিআই আজকাল সাক্ষীকে ডেকে গ্রেফতার করে। তাই সিবিআই-এর এই আচরণকে সাধারণ মানুষ ভয় পায়। সাক্ষীকে এভাবে ভয় দেখানো যায় না। কোনও অপরাধ নেই, তাই হুমকি নয়। রক্ষাকবচ দেওয়া হোক। সিবিআিয়ের পাল্টা দাবি, তিনি এসএসকেএমে যাচ্ছেন. তার থেকে ২০০ মিটার দূরে নিজাম প্যালেসে যেতে পারছেন না। তিনি প্রভাবশালী বলেই হাসপাতালের প্রেসক্রিপশনে লেখা হয়েছে অনারেবল অনুব্রত মন্ডল। তিনি কি বিচারপতি না মন্ত্রী, প্রশ্ন তুলেছে সিবিআই।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *