www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

July 19, 2024 9:45 pm

রাজ্যে রাজনৈতিক লড়াই আর দিল্লিতে গিয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে বোঝাপড়া রেখে চলা৷ বামেদের দেখানো এই পথই অনুসরণ করা উচিত ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷

তৃণমূল কংগ্রেসের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) কোনো সিদ্ধান্ত নিয়ে মুখ খোলার সাহস কোনোদিন কোনো তৃণমূল নেতা দেখতে পারেন নি। সেই কাজটা করলেন নলহাটির তৃণমূল নেতা।

এক সভায় তিনি বলেন, রাজ্যে রাজনৈতিক লড়াই আর দিল্লিতে গিয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে বোঝাপড়া রেখে চলা৷ বামেদের দেখানো এই পথই অনুসরণ করা উচিত ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷ প্রকাশ্য সভায় এমন মন্তব্য করে দলের মধ্যেই বিতর্কে জড়ালেন বীরভূমের নলহাটি ২ নম্বর ব্লকের তৃণমূল সভাপতি বিভাস অধিকারী৷(Bivas Adhikary)
দলের নেতার এ হেন বক্তব্যে স্বভাবতই অস্বস্তিতে পড়েছে শাসক দল৷ অন্য দিকে বিজেপি (BJP) নেতাদের দাবি, কেন্দ্রীয় এজেন্সির হাত থেকে বাঁচতেই এমন মন্তব্য করেছেন বিভাস অধিকারী নামে ওই নেতা৷ কারণ তিনি টেট (TET) দুর্নীতি কাণ্ডে ধৃত তৃণমূল বিধায়ক মানিক ভট্টাচার্যের (Manik Bhattacharya)  ঘনিষ্ঠ৷ ইডি-র নজরেও রয়েছেন নলহাটির এই তৃণমূল নেতা৷ নলহাটিতে একটি শিক্ষক প্রশিক্ষণ কলেজও রয়েছে বিভাস অধিকারী নামে ওই নেতার৷
ওই তৃণমূল নেতা বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, ‘আগেও বলেছি, আবারও বলছি৷ সেন্ট্রালের সাহায্য ছাডা় একটা রাজ্য চলে না৷ এত টাকা দেওয়া সম্ভব হয় না৷ ওই বামফ্রন্টের যেমন কূটবুদ্ধি, এখানে কুস্তি করো আর দিল্লিতে গিয়ে মস্তি করো৷ এই জ্ঞান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেওয়া উচিত ছিল৷ মানুষের স্বার্থে, রাজ্যের স্বার্থে, মানুষের মঙ্গলের স্বার্থে এই জ্ঞান নেওয়া উচিত ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷ এটা যদি আমি মিথ্যে বলি, মিলিয়ে নেবেন, সময় আছে৷’
এই নিয়ে সিপিএমের কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া না গেলেও বিজেপি স্পষ্ট করে বলেছে,উনি সিবিআই এর আতস কাচের নিচে আছে বলেই ভয়ে এইসব কথা বলছেন।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *