www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

May 27, 2024 4:12 pm

হিন্দু শাস্ত্র অনুসারে, যখনই সূর্যদেবকে জল নিবেদন করা হয় বা পূজা করা হয়, তখন প্রাণীর কোনও প্রকার রোগ, বিদ্বেষ প্রভৃতি ভোগেন না।  ভানু সপ্তমীর দিন, প্রত্যেক ব্যক্তির জল নিবেদনের শপথ নেওয়া উচিত, ধর্মশাস্ত্রে বর্ণিত। বিশেষ করে সকালে সূর্যদেবকে জল নিবেদন করা সকল প্রাণীর কর্তব্য হওয়া উচিত। কারণ শুধুমাত্র সূর্যের কৃপায় আমরা আমাদের শরীরকে প্রকৃতির সাথে খাপ খাইয়ে নিতে পারি।

ভানু সপ্তমীর উপবাস ও পূজা করে অর্থাৎ সূর্যদেবকে স্মরণ করলে একজন ব্যক্তি সুস্থ হয়ে ওঠে। প্রতিদিন সূর্যদেবকে জল অর্পণ করলে বুদ্ধির বিকাশ হয়, বুদ্ধি প্রখর হয় এবং মন শান্তি পায়। সূর্য দেবতার পূজা করলে স্মৃতিশক্তির বিকাশ ঘটে। ভানু সপ্তমীর দিনে করা পূজা বেশি ফল দেয়। এই দিনে মানুষের দ্বারা করা পুণ্যের কাজগুলি খুব ভাল ফলাফলের কারক। গরুকে সবুজ চারণ খাওয়ানো খুবই উত্তম বলা হয়। সমগ্র দেবতার পূজা করলে গ্রহ দোষ দূর হয়।

মানবদেহ পাঁচটি উপাদানের সমন্বয়ে গঠিত যেখানে সূর্যের দ্বারা শক্তি প্রাপ্ত হলেই শরীর তার ক্রিয়া সম্পাদন করতে পারে। শুধুমাত্র সূর্য দেবতার কৃপায় শারীরিক কষ্ট দূর করা যায়। উপাসকরা যখনই সূর্যদেবকে জল নিবেদন করেন এবং প্রদত্ত মন্ত্রগুলি উচ্চারণ করেন, তখন তারা মানসিক শান্তির পাশাপাশি দুঃখ-কষ্ট থেকে মুক্তি পাওয়ার শক্তি পান। তারা হল-

ওম মিত্রায় নমহা, ওম রাবায়ে নমহা ওম সূর্যায় নমহা। ওম ভানভে নমহা ওম খগায় নমহা, ওম পুষনে নমহা ওম হিরণ্যগর্ভায় নমহা, ওম মারিচে নমহা ওম সাবিত্রে নমহা, ওম অর্কায় নমহা ওম আদিনাথায় নমহা, ওম ভাস্করায় নমহা ওম শ্রী সবিতাসূর্যনারায়ণ নমহা

ভক্তদের পক্ষে সম্ভব হলে সূর্যোদয়ের সময় নদী, পুকুর বা খাল ইত্যাদিতে স্নান করতে হবে এবং সূর্য উদিত হলে সূর্যের প্রথম রশ্মি সরাসরি পড়তে হবে। জল অবশ্যই, এর মধ্যে কোনও বাধা দেওয়া উচিত নয়। সূর্যের প্রথম রশ্মি শরীরে স্পর্শ করার সঙ্গে সঙ্গে কিছু প্রয়োজনীয় উপাদান যেমন- লাল চন্দন, লাল ফুল, চাল এবং কিছু গমের দানা তামার পাত্রে ভরে জলে ভরে সূর্যদেবকে নিবেদন করতে হবে।

এই সময়ে মনে রাখবেন সূর্যকে জল নিবেদন করার সময় চোখ যেন সূর্যের দিকে থাকে এবং পাত্র থেকে পতিত জল যেন সূর্য ও চোখের মাঝখানে থাকে তাতে অনেক উপকার হয়। এতে করে মস্তিষ্ক তাৎক্ষণিক শক্তি পায় এবং মন শান্তি পায়। সূর্যকে জল অর্পণ করার সময়, সম্ভব হলে উপরে উল্লিখিত মন্ত্রগুলি জপ করতে হবে এবং গায়ত্রী মন্ত্রের জপকে সর্বোত্তম বলা হয়।

গভীর দানের বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে, এর বাইরে কর্পূর, ধূপ, লাল ফুল ইত্যাদি দিয়ে ভগবান সূর্যকে পূজা করতে হবে। স্নান করার সময় মাথায় বট গাছের সাতটি পাতা এবং অর্ক গাছ রাখুন। স্নানের পর সাত প্রকার ফল, ধান, তিল, দূর্বা, চন্দন ইত্যাদি জলে মিশিয়ে উদীয়মান ভগবান সূর্যকে জল দেওয়া উত্তম।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *