www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

February 21, 2024 1:44 pm

১৯৯৫ সাল থেকে ২০২২ পর্যন্ত প্রায় ৯৫ জন নিখোঁজ ব্যক্তিকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ফিরিয়ে দিয়ে খুশি সুশান্ত ঘোষ। তিনি বলেন,' মানসিক শান্তি পাই'। পাশাপাশি এই নিখোঁজ ব্যক্তিদের জন্য যদি একটি আশ্রয় কেন্দ্র হয় সেটাও দাবি জানাচ্ছি।

সৌজন্যে হ্যাম রেডিও। আবার এই বেতার প্রযুক্তি ও উৎসুক মানুষের সদ্দিচ্ছায় মাকে ফিরে পেলেন সন্তানেরা।

বসিরহাটের (basirhat) সুন্দরবনের হিঙ্গলগঞ্জ ব্লকের (sundarban) হিঙ্গলগঞ্জ বাজারে এলাকায় ঘটনা। গত ১৫ দিন ধরে ঘোরাঘুরি করছিল বছর ৫৭ এক মহিলা। সেই সময় ওই মহিলা সমাজসেবী সুশান্ত হোসেনের নজরে আসে। তারপর তার নাম ও পরিচয় জানার চেষ্টা করে।

প্রথমে চিকিৎসা মাধ্যমে তাকে সুস্থ সেবা করে নতুন বস্ত্র পরিয়ে তারপর দুবেলা খাইয়ে পরিচয় জানার চেষ্টা করছিলেন সুশান্ত বাবু। এরপর তার ছবি এম রেডিওর কাছে পাঠিয়ে দিয়ে তার ঠিকানা জানার চেষ্টা করেন।

জানা যায় উত্তরপ্রদেশের (uttar pradesh) কুশীনগর জেলার রাজপুর খাসগ্রাম থেকে গত একমাস আগে ওই মহিলা নিখোঁজ হয়ে যায়। প্রথমে তার পরিবারের সদস্য ও ছেলে স্থানীয়র থানায় নিখোঁজের ডাইরি করে। তারপর নিজস্ব আত্মীয়র বাড়িতে যোগাযোগ করলেও তার খোঁজ পাওয়া যায় না।

এরপর হাাম রেডিওর (ham radio) মাধ্যমে যোগাযোগ। রাজ্যের দায়িত্বে থাকা অম্বরিশ বিশ্বাসের উদ্যোগে পুরো ঠিকানা জানার চেষ্টা করে। প্রথমে বছর ৫৭ র ভাগবতি যাদবের ছবি দিয়ে থানায় যোগাযোগ করলে জানা যায় কুশিনগর জেলার রাজপুর খাসপুর গ্রামের ওই মহিলা গত একমাস আগে নিখোঁজ হয়ে গেছে। এরপর যোগাযোগ শুরু হয় তার ছেলে কমলেশ যাদবের সঙ্গে। তারপর তার সঠিক পরিচয় পত্র এনে ভগবতী কে ছেলে কমলেশের হাতে তুলে দেয় স্থানীয় প্রশাসন।

১৯৯৫ সাল থেকে ২০২২ পর্যন্ত প্রায় ৯৫ জন নিখোঁজ ব্যক্তিকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ফিরিয়ে দিয়ে খুশি সুশান্ত ঘোষ। তিনি বলেন,’ মানসিক শান্তি পাই’। পাশাপাশি এই নিখোঁজ ব্যক্তিদের জন্য যদি একটি আশ্রয় কেন্দ্র হয় সেটাও দাবি জানাচ্ছি।

সুশান্ত ঘোষের এই উদ্যোগকে সবাই সাধুবাদ জানায়।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *