www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

June 21, 2024 4:38 pm

খবরে আমরাঃ বাম শাসনের অবসান হয়েছে ২০১১ সালেই। কিন্তু রাজ্যের শাসকদল তৃণমূলের সঙ্গে রাজনৈতিক সংঘর্ষ অব্যাহত বামেদের। মারই মাঝে রাজনৈতিক সৌজন্যের নজির রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। একদা বামেদের কাণ্ডারী জ্যোতি বসুর নামে তারা মেমোরিয়াল গড়তে চেয়েছিল। তাই জমি চেয়েছিল সিপিএম। অনুরোধ রক্ষা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফলে রাজারহাটে এবার শুরু হতে চলেছে প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু মোরিয়ালের কাজ। আগামী ৮ জুলাই, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর জন্মদিনেই প্রস্তাবিত মেমোরিয়ালের রূপরেখার খসড়া সম্পূর্ণ করতে চাইছে সিপিএম। রাজারহাটে নির্মীয়মাণ নতুন হাই কোর্টের কাছেই ৫ একর জমি সিপিএমের জন্য অনুমোদন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এটি কেনা হয়েছে ‘জ্যোতি বসু সেন্টার ফর সোশ্যাল স্টাডিজ অ্যান্ড রিসার্চে’র নামে। এই ট্রাস্টের সচিব রবীন দেব। এতে আছেন বিমান বসু-সহ বিশিষ্ট নেতারা। মুখ্যমন্ত্রীর অনুমোদনের পর বিভিন্ন প্রক্রিয়া সেরে জমিটি হাতে পেয়েছে ট্রাস্ট। গত বছর ৮ জুলাই থেকেই রাজারহাটে জমিতে বোর্ড লাগিয়ে একাংশে বৃক্ষরোপণ হয়েছে। এখন পুরোদস্তুর মেমোরিয়াল তৈরির কাজ শুরু হচ্ছে। আলিমুদ্দিন স্ট্রিটের দপ্তরে এই নিয়ে একাধিক বৈঠকও চলছে। এ বিষয়ে আধুনিক প্রযুক্তি ও বিশিষ্ট নির্মাতাদেরও মতামত নিচ্ছে পার্টি। সূত্রের খবর, এখানে থাকবে জ্যোতি বসু ও বাম আন্দোলন সংক্রান্ত সংগ্রহশালা, গ্রন্থাগার, প্রদর্শনশালা, অডিটোরিয়াম। থাকবে অতিথিদের জন্য থাকার ব্যবস্থা। উৎকর্ষে অভিনবত্ব চাইছেন নেতারা। যাঁরা বাম আন্দোলন নিয়ে গবেষণা করতে চান, তাঁদের জন্য সব তথ্য, নথির আয়োজন থাকবে। রবীনবাবু কাজের গতি বাড়াতে চাইছেন। নকশা নিয়ে বৈঠক চলছে। তবে ট্রাস্ট সূত্রে খবর, চলতি রাজনীতিতে সিপিএমের এলোমেলো অবস্থা এবং খানিকটা অর্থ সংকটের কারণে পার্টি খুব জোর দিয়ে এগোতে পারছে না। কিন্তু জ্যোতি বসু মেমোরিয়ালের কাজ আর বিলম্বিত করতে চায় না তারা। তাই এখন নকশা চূড়ান্ত করে মূল কাজ শুরু হতে চলেছে।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *