www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

June 24, 2024 3:10 am
rash bari

রাসবাড়ি গার্ডেন হাউস প্রতিষ্ঠিত হয় অনেক আগে। কিন্তু সম্প্রতি সেখানে নৈশযাপনের ব্যবস্থা হওয়ায় পরিবার নিয়ে একদিনের জন্য গঙ্গা দর্শনের আদর্শ স্থান এই রাসবাড়ি। বেলুড় মঠের কাছে গঙ্গার তীরে 'রাসবাড়ি গার্ডেন হাউস' অন্যরকম পরিবেশে ছোট্ট ছুটি কাটানোর জন্য একটি চমৎকার জায়গা। দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের (Dakshineswar Mandir) আদলে তৈরী রাধারমন জিউয়ের নবরত্ন মন্দির, রাসমঞ্চ-সহ নাটমন্দির, ছ’টি আটচালা শিবমন্দির, নহবৎখানা, ঘড়ি-ঘর, অতিথিদের জন্য থাকার ব্যবস্থা, সবমিলিয়ে বড়সড় এক কমপ্লেক্স।

বাঙালির দেখা পাওয়া যায় সারা পৃথিবীতে। কারণ বাঙালি ঘরে থাকতে ভালোবাসে না। বাঙালি উড়তে চায়। বাঙালির ওড়ার ডানা নেই,কিন্তু আছে ওড়ার মন। সে কাছেই হোক আর দূরে। তাই আজ কাছের একটা অসাধারণ জায়গার কথা বলবো। তা হলো ‘রাসবাড়ি গার্ডেন হাউস।’

রাসবাড়ি গার্ডেন হাউস প্রতিষ্ঠিত হয় অনেক আগে। কিন্তু সম্প্রতি সেখানে নৈশযাপনের ব্যবস্থা হওয়ায় পরিবার নিয়ে একদিনের জন্য গঙ্গা দর্শনের আদর্শ স্থান এই রাসবাড়ি। বেলুড় মঠের কাছে গঙ্গার তীরে ‘রাসবাড়ি গার্ডেন হাউস’ অন্যরকম পরিবেশে ছোট্ট ছুটি কাটানোর জন্য একটি চমৎকার জায়গা। দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের (Dakshineswar Mandir) আদলে তৈরী রাধারমন জিউয়ের নবরত্ন মন্দির, রাসমঞ্চ-সহ নাটমন্দির, ছ’টি আটচালা শিবমন্দির, নহবৎখানা, ঘড়ি-ঘর, অতিথিদের জন্য থাকার ব্যবস্থা, সবমিলিয়ে বড়সড় এক কমপ্লেক্স। (Spiritual)

১৮৯০ সালে রাসবাড়ির মন্দির প্রতিষ্ঠা করেছিলেন জোড়াসাঁকোর (Jorasanko) দাস-পরিবারের পূর্ণচন্দ্র দাস। আতিথিদের জন্য থাকার ব্যবস্থাটি নতুন।
অতীতে পুজো-পার্বণে উৎসব-মুখরিত হয়ে থাকত রাসবাড়ি। তবে মন্দিরে এখনো নিত্যপূজা হয়ে থাকে। রাসের সময় বড় আকারে উৎসব হয়। সেজে ওঠে সমগ্র মন্দির চত্বর। মন্দির প্রাঙ্গনের বাইরে মেলা বসে। মেলা চলে এক সপ্তাহ ধরে। নদীর ধারে অপূর্ব বসার জায়গায় ছাতার তলায় বসে নদী দর্শনের মতো আনন্দ খুব কম পাওয়া যায়। এখানে যেকোনো সময় আসা যায়। তবে কোনো পূর্ণিমা রাতে এই গঙ্গার সৌন্দর্য অনুপম। (Rash Bari)

যাওয়া ও থাকা – নিজের গাড়ি বা ভাড়া গাড়ি নিয়ে স্বচ্ছন্দে সকালে এসে সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরতে পারেন। আর কাছের রেল স্টেশন বেলুর। বেলুড়ে নেমে রিকশা বা অটো করে ৬/৭ মিনিটে চলে যান রাসবাড়ি। বেলুর স্টেশনের বাইরে একাধিক লজ পাবেন। খরচ অনেক কম। তবে রাসবাড়ির ভিতরে থাকার মজাই আলাদা। সেক্ষেত্রে খরচ একটু বেশি বটে। থাকার জন্য রাসবাড়ি গার্ডেন হাউসে দ্বিশয্যা ও চার শয্যার ঘর আছে। ব্রেকফাস্ট-সহ ঘরের ভাড়া পরবে আপনার যথাক্রমে ৩৫০০ ও ৪০০০ টাকা। এক্ষেত্রে মধ্যাহ্নভোজন ও নৈশভোজের খরচ আলাদা। রাসবাড়ি গার্ডেন হাউসে ডে আউটের ব্যবস্থাও আছে। অন্তত ৪ জনের দল হতে হবে। এক্ষেত্রে একটি ঘরের সঙ্গে প্রাতরাশ, নিরামিষ মধ্যাহ্নভোজ ও বিকেলের চায়ের ব্যবস্থা থাকবে। সময় সকাল ৫টা থেকে বিকেল ৫টা। খরচ মাথাপিছু ১৫০০ টাকা।

বুকিংয়ের জন্য যোগাযোগ করতে পারেন রাসবাড়ি গার্ডেন হাউসের এই নম্বরেঃ ৯০৫১৫-২৫৩০৭। আশা করা যায় এই নম্বরেই আপনারা আপনাদের সমস্ত প্রয়োজনীয় তথ্য পেয়ে যাবেন।

মাত্র ১/২ দিনের জন্য আউটিংয়ের দারুন জায়গা এই ‘রাসবাড়ি’।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *