www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

June 19, 2024 4:18 pm

খবরে আমরাঃ রামপুরহাটে ‘গণহত্যা’র ঘটনার পিছনে বড় কোনও ষড়যন্ত্র রয়েছে বলেই মনে করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে এই ধরনের ঘটনা রুখতে সাধারণ মানুষের এগিয়ে আসার প্রয়োজন রয়েছে বলেও দাবি তাঁর। সে কারণেই আগামী দু’ মাসের মধ্যে ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচির আদলে ঘোষণা করা হবে নতুন কর্মসূচি। রবিবার শিলিগুড়িতে এমনই জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন উত্তরা গ্রাউন্ডে এক সরকারি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আমি আগামী দু’ মাস সময় নেব। তার পর যদি কারও বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে, কারও বিরুদ্ধে খুনখারাপির অভিযোগ ওঠে, অত্যাচারের অভিযোগ থাকে, আমি আর একটা সেট আপ তৈরি করব দিদিকে বলোর মতো করে। নামটা এখন বলছি না। সেটা আমরা ঠিক করে আপনাদের জানাব। সেইখানে একটা মিসড কল দেবেন। আপনার নাম বলবেন। জানাবেন কোথায় কী ঘটছে। সঙ্গে সঙ্গে আমি ব্যবস্থা নেব। সে অফিসারই হোক, সে কোনও রাজনৈতিক দলই হোক বা সাংবাদিক, বাইরের লোকই হোক। ব্যবস্থা হবেই।”

এ প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তুলে ধরেন তাঁর রেলমন্ত্রী থাকার সময়ের কথা। তিনি বলেন, রেলমন্ত্রী থাকাকালীন তিনি এই ধরনের ঘোষণা করেছিলেন। গ্রাম, শহরের ছেলেমেয়েদের আহ্বান জানিয়েছিলেন নজরদারির জন্য। মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, “আমি বলেছিলাম যদি কখনও দেখেন কোথাও রেলের লাইন কাটা বা ফাটা বা যদি দেখেন কেউ কোথাও তছনছ করতে এসেছে জানান। তা হলে রেল থেকে পুরস্কৃত করা হবে। এমনকী রেলে চাকরিও দেওয়া হবে। আমি দিয়েছিলাম। এখনও আমি সাধারণ মানুষকে বলব যদি কারও কাছে কোনও গোলমালের খবর থাকে দয়া করে লোকাল থানায় গিয়ে জানাবেন। আর থানা অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা না নেয় তা হলে সেই পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে রাজ্য সরকার ব্যবস্থা নেবে। সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিলে এ ধরনের ঘটনা ঘটাতে কেউ সাহস পায় না। কেউ কোনও অন্যায় ধরিয়ে দিলে সরকার পুরস্কৃত করবে তাঁকে।

লোকসভা ভোটের আবহে দিদিকে বলো কর্মসূচিতে ব্যাপক সাফল্য এসেছিল রাজ্য সরকারের। বিভিন্ন জায়গা থেকে শাসকদলের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ জমা পড়েছিল গ্রিভান্স সেলে। বহু প্রথম সারির নেতার বিরুদ্ধেও মুখ খুলেছিলেন মানুষ। এই কর্মসূচিতে আখেরে দলের লাভ হয়েছিল বলেই মনে করে তৃণমূলের একাংশ। সেই ধাঁচেই এবার নতুন কর্মসূচির কথা জানালেন মমতা। এ প্রসঙ্গে বাম-কংগ্রেস-বিজেপিকে এক যোগে বিঁধে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “৩৪ বছর ধরে সিপিএম ক্ষমতায় ছিল, কেন্দ্রে সরকার ছিল কংগ্রেসের, বিজেপি এখন ক্ষমতায়। অথচ মানুষের জন্য কেউই কোনও কাজ করেনি।”

এই মঞ্চ থেকে দলীয় কর্মীদেরও কড়া বার্তা দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেন, “এখানে সবাইকে বলব, দু একজন দুষ্টু গরু সব জায়গাতেই থাকে। তাদের সাবধান হতে বলব, সতর্ক হতে বলব। ভাল করে কাজ করুন। কেউ কোনও গন্ডগোলে জড়াবেন না। মনে রাখবেন অন্য কেউ ক্ষমা করলেও, আমি কিন্তু ক্ষমা করব না। আমি কোনও হিংসা, সন্ত্রাস চাই না।”

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *