www.machinnamasta.in

ওঁ শ্রীং হ্রীং ক্লী গং গণপতয়ে বর বরদ সর্বজনস্ময়ী বশমানয় ঠঃ ঠঃ

July 19, 2024 9:20 pm
calcutta highcourt

খবরে আমরা : পুরসভাগুলির অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের গ্রাচুইটি মেটানোর দায়িত্ব রাজ্যের নাকি পুরসভার, সেই প্রশ্নে সিদ্ধান্তে আসতে আদালত বান্ধব নিয়োগ করলো কলকাতা হাইকোর্ট।

রাজ্যের পুরসভাগুলিতে বহু অবসরপ্রাপ্ত কর্মীর গ্রচুইটি বাবদ কয়েক লক্ষ টাকা বাকি পড়ে রয়েছে। এই গ্রাচুইটি মেটানো একটা গুরুতর বিষয়। সম্প্রতি বহরমপুর পুরসভা এই নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করে। কিন্তু সেই মামলায় গ্র্যাচুইটির টাকা রাজ্য না পুরসভা দেবে তা নিয়ে ওটা আইনি প্রশ্নের আগে বিহিত হওয়া দরকার বলে মনে করে হাইকোর্ট।

তাই এর রূপরেখা তৈরির জন্য আইনজীবী সারোয়ার জাহানকে আদালত -বান্ধব নিয়োগ করলো বিচারপতি অরিজিৎ ব্যানার্জির ডিভিশন বেঞ্চ। আগামী ২০ জুনের মধ্যে তাকে বিষয়টি নিয়ে মতামত দিতে হবে আদালতকে। এই মামলার ভবিষ্যতের উপর রাজ্যের সব পুরসভার অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের বকেয়া টাকা মেটানো নির্ভির করছে।

অভিযোগ বহরমপুর পুরসভার শ পাঁচেক অবসরপ্রাপ্ত কর্মী প্রাপ্য গ্র্যাচুয়িটি পাচ্ছেন না। এদেরই কিছু অবসরপ্রাপ্ত কর্মী মামলা করেছেন। কিন্তু এদের বকেয়া মেটানোর অর্থ পুরসভার ভাড়ারে নেই। তাই ওই টাকা রাজ্যের কাছ থেকে পেতে আদালতের দ্বারস্থ হয় পুরসভা।

রাজ্য আদালতে জানায়, পেনশনের ৪০ শতাংশ টাকা দেয় রাজ্য। আর কর্মীদের জন্যে থাকা রুল অনুযায়ী, গ্র্যাচুইটি পেনশনের অংশ বলে জানান রাজ্যের আইনজীবী। এরপরেই আদালত এই ইস্যু ঘিরে বৃহত্তর স্বার্থে আইনি প্রশ্নের সমাধানে উদ্যোগ নেয়।

বহরমপুর পুরসভার আইনজীবী অরিন্দম দাস বলেন, আমরাও চাই অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরা তাদের প্রাপ্য পান। ২০১৮ সালে প্রশাসক পুরসভার দায়িত্ব নেওয়ার পরে বেশ কিছু কর্মীর বকেয়া মিটিয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখনও কয়েক শ কর্মীর প্রাপ্য মেটাতে যে পরিমাণ টাকা লাগবে, তা মেটাতেই রাজ্যের সাহায্য চেয়ে আদালতে মামলা করা হয়েছে।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *